সেই চিকিৎসকের মৃত্যুতে চীনের সামাজিক মাধ্যমে ঝড়

চীনজুড়ে উদ্বেগজনক হারে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের খবর প্রথম জানিয়েছিলেন চক্ষু বিশেষজ্ঞ লি ওয়েনলিয়াং। এজন্য তিনি সতর্কও করেছিলেন সবাইকে। কিন্তু চীনা কর্তৃপক্ষ বিষয়টিকে গুরুত্ব দেয়নি। পরে ভাইরাসটি ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়লে এবং অনেক মানুষের মৃত্যু হলে নায়কোচিত প্রশংসা পান ঐ চিকিৎসক। তবে শেষ রক্ষা হয়নি ওই ডাক্তারেরও। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েই মারা যান লি।

চিকিৎসক লি ওয়েনলিয়াংয়ের মৃত্যু ঘিরে দেশটিতে নজিরবিহীন মাত্রায় জনরোষ ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। একই সঙ্গে শোকের ছায়াও নেমে এসেছে।

তার মৃত্যুর খবরটি চীনা সামাজিক মাধ্যম ওয়েইবোতে রীতিমতো ঝড় তোলে। অনেকটা টুইটারের আদলে বানানো ওয়েইবোতে এ সংক্রান্ত খবরে প্রচুর মানুষ প্রথম দিকে শোক প্রকাশ করে প্রতিক্রিয়া জানায়। তবে দ্রুতই তাদের এই শোক পরিণত হয় ক্ষোভে।

ইতোমধ্যে চীনা সরকারের বিরুদ্ধে ভাইরাসের ভয়াবহতাকে খাটো করে দেখা এবং শুরুর দিকে এ সংক্রান্ত তথ্য গোপন করার অভিযোগ তোলা হয়েছে। চিকিৎসক লির মৃত্যু চীনে বাকস্বাধীনতার অভাব বিষয়ক একটি আলোচনাও উস্কে দিয়েছে।

এ অবস্থায় চীনের দুর্নীতিবিরোধী সংস্থা বলছে, ‘ডা. লিকে জড়িয়ে ঘটনার’ তদন্ত করবে তারা। এর আগে চীন সরকার করোনাভাইরাস মোকাবিলায় তাদের ব্যর্থতা ও ঘাটতি স্বীকার করে নিয়েছিল।

প্রাণঘাতী এই করোনা ভাইরাসে গতকাল বৃহস্পতিবারই ৭৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে হুবেই প্রদেশেই ৬৯ জন। এছাড়া এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত সর্বমোট ৬৩৬ জন মারা গেছেন। তবে এ সংখ্যা আরও বেশি বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

চীনের বাইরে ফিলিইপাইনে ও হংকংয়ে মারা গেছেন দুইজন। অবশ্য ফিলিপাইনে মারা যাওয়া ব্যক্তিও চীনেরই নাগরিক। এই ভাইরাসে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা ৩১ হাজার ছাড়িয়ে গেছে।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর চীনসহ প্রায় ২৫টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বিশ্বজুড়ে জরুরি অবস্থা জারি করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

এদিকে এ ভাইরাসের আক্রান্তের সংখ্যা দ্রুত গতিতে বাড়ার কারণে বিশ্বের অন্যান্য দেশের সঙ্গে কার্যত বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে চীন। দেশটির নাগরিকদের মাঝে বইছে উদ্বেগ আর উৎকণ্ঠা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *