ভিন্নধর্মী জবাবদিহিতায়- ইউপি চেয়ারম্যানের

অনিয়ম এড়াতে ভিন্নধর্মী জবাবদিহিতা দেখালেন  এক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। করোনা পরিস্থিতিতে ত্রাণ বিতরণে অনিয়মের কারণে ইতোমধ্যে বরখাস্ত হয়েছেন দেশের বিভিন্ন এলাকার কয়েকজন জনপ্রতিনিধি।

এই ঘটনাটি ঘটিয়েছে কক্সবাজারের রামু উপজেলার খুনিয়াপালং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মাবুদ।

সরকার প্রদত্ত আড়াই হাজার প্রণোদনার টাকার অনিয়ম এড়াতে গুরুত্বপূর্ণ একশ’ স্পটে প্রধানমন্ত্রীর উপহার প্রাপ্ত এক হাজার ৫০ জনের তালিকা টানিয়ে দিয়েছেন তিনি।মঙ্গলবার (১৯ মে) ও বুধবার (২০ মে) নিজেই এলাকায় ঘুরে ঘুরে প্রধানমন্ত্রী প্রদত্ত আড়াই হাজার টাকার প্রণোদনার তালিকা টানিয়ে দেন তিনি।

ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল মাবুদ বলেন,আমার সামাজিক ও রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বিরা তাকিয়ে থাকেন এসব তালিকায় ভুলভ্রান্তি খুঁজে বের করার জন্য। ‘আমার ইউনিয়নের এক হাজার ৫০ জন উপকারভোগী পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী প্রদত্ত আড়াই হাজার টাকার প্রণোদনা।  তাই ত্রাণের কোনো ভাগ না খেয়েও আমি অহেতুক বদনামের ভাগিদার হতে চাই না।’

নয়টি ওয়ার্ডের ১০০টি স্থানে এসব উপকারভোগিদের তালিকা টানানো হচ্ছে। চৌকিদার, দফাদার ছাড়াও আমি নিজেই উপকারভোগীদের তালিকা টানিয়ে জনগণকে আহ্বান জানাচ্ছি। চেয়ারম্যান আবদুল মাবুদ আরও বলেন, ‘কোনো ভুলভ্রান্তি থাকলে আমি তা সংশোধন করে দেবো।

রামু উপজেলার খুনিয়া পালং ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের এরকম ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগ সর্বমহলে প্রশংসিত হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *