বিশ্ব খাদ্য সংস্থার শুভেচ্ছা দূত জাতীয় ক্রিকেট দলের তামিম ইকবাল

বিশ্ব খাদ্য সংস্থার (ডব্লিউএফপি) শুভেচ্ছা দূত মনোনীত হয়েছেন জাতীয় ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই খবর নিশ্চিত করেছে আন্তর্জাতিক এই সংস্থাটি। 

বিশ্ব খাদ্য সংস্থার শুভেচ্ছা দূত হিসেবে তামিম ইকবাল দেশের ৬৪টি জেলায় সচেতনতা মূলক কাজে অংশ নিবেন। সেই সঙ্গে কক্সবাজার রোহিঙ্গা অভিবাসন কেন্দ্রসহ দেশের বিভিন্ন স্কুলে খাদ্য সরবরাহ, পুষ্টিবৃদ্ধি ও তাদের জীবনমানের উন্নয়নে উদ্বুদ্ধকরণ কাজে অংশ নিবেন।

তামিম ইকবাল নিজের ফেসবুক পেইজে এই খবর জানিয়ে লিখেছেন, ‘আমি জাতিসংঘের সংস্থা ডব্লিউএফপির জাতীয় গুডউইল অ্যামবাসেডর হিসেবে নিযুক্ত হতে পেরে সম্মানিত বোধ করছি। সেই সঙ্গে সম্মানিত বোধ করছে আমার দেশ বাংলাদেশও।’ এই সংস্থাটি বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বকে ক্ষুধামুক্ত করার জন্য কাজ করে চলেছে।”

জাতীয় দলের এই ওপেনার বলেন, ‘সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বাংলাদেশ দারুন অর্থনৈতিক অগ্রগতি লাভ করেছে। তবে দারিদ্র্যতাকে, বিশেষ করে গ্রামীন জনগোষ্ঠির আর্থিক দৈন্যতা এখনো কাটিয়ে উঠেনি। কোভিড সংকট তাদের জীবন জীবিকাকে হুমকিতে ফেলে দিয়েছে। আশা করি বিশ্ব খাদ্য সংস্থার উদ্যোগে ক্ষুধার বিরুদ্ধে সংগ্রামে আমি ভুমিকা রাখতে পারব। দেশের অভাবগ্রস্ত জনগোষ্ঠির আমাদের সহযোগিতা ও সমর্থন প্রয়োজন।’

বিশ্ব খাদ্য সংস্থার বাংলাদেশ প্রতিনিধি ও পরিচালক রিচার্ড রাগান এক বিবৃতিতে বলেন,‘ তামিম একজন ক্রীড়াবিদ হিসেবে দেশে ও দেশের বাইরে সবার আস্থা অর্জন করেছেন। শুধু জনপ্রিয়তা ছাড়াও তামিমের মধ্যে রয়েছে অসাধারণ নৈতিকতা ও মানবিকতা। বিশ্বখাদ্য সংস্থা পরিবারে তাকে পেয়ে আমরা দারুনভাবে রোমঞ্চিত।’

বাংলাদেশে করোনা সংকটকালে ক্রীড়া জগতের অনেককেই আর্থিক সাহায্য-সহযোগিতা করেছেন তামিম ইকবাল। খোঁজ-খবরও নিয়েছেন নিম্ন আয়ের মানুষদের। ক্রীড়ার বাইরেও মানবিকতার হাত প্রসারিত করেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *