বাজেট বাড়লো অনুদানের সিনেমায়

বাজেট বাড়লো অনুদানের সিনেমায়
বাজেট বাড়লো অনুদানের সিনেমায়

প্রতি বছরই সরকারি অনুদানে চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য বাজেট ঘোষণা করা হয়। কিন্তু যে বাজেট দেওয়া হয় তাতে একটি সিনেমা নির্মাণ করা সম্ভব হয় না। ফলে এ নিয়ে নির্মাতাদের অনুযোগ ছিল। একটি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য সেই অনুদান যথেষ্ঠ নয় বলে অনেকেই দাবী করতেন। এবার সরকারি অনুদানে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য সার্বিক বিষয়ে গুরুত্ব দিয়ে বাজেট বাড়িয়েছে সরকার।

২০২০-২১ অর্থ বছরে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণে এখন সর্বোচ্চ ৭৫ লাখ টাকা এবং স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের অনুদান ১০ লাখ টাকা বাজেট নির্ধারণ করেছে সরকার। কয়েকটি শর্তও সঙ্গে দেওয়া হয়েছে। সম্প্রতি এক নীতিমালা প্রকাশ করে এমন তথ্য জানিয়েছে তথ্য মন্ত্রণালয়।

নীতিমালায় জানানো হয়েছে যে, মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক একটি চলচ্চিত্রসহ সর্ব মোট ১০টি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে অনুদান দেওয়া হবে। চলচ্চিত্রের নির্মাণ কাজ শেষ করতে হবে  অনুদানের চেক প্রাপ্তির ৯ মাসের মধ্যেই, চলচ্চিত্রের ভাষা ও বিষয়বস্তু জেন্ডার সংবেদনশীল হতে হবে, দৃশ্য ধারণ করতে হবে ডিজিটাল ফরমেটে। তবে এবারই প্রথম নীতিমালায় শর্ত জুড়ে দেওয়া হয়েছে, অনুদান প্রাপ্ত চলচ্চিত্র নূন্যতম ১০টি সিনেমা হলে মুক্তি দিতে হবে।

নীতিমালায় আরও জানানো হয়, ২০২০-২১ অর্থ বছরে একটি শিশুতোষ চলচ্চিত্রসহ ১০টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের প্রত্যেকটিতে সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকা করে অনুদান দেওয়া হবে।

এবার বাড়লো ১৫ লাখ টাকা। এর আগে ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র সর্বোচ্চ অনুদান দেওয়া হয়েছিল ৬০ লাখ টাকা। নতুন নীতিমালার আলোকে খুব দ্রুত ১১ সদস্যের অনুদান কমিটি ও ৭ সদস্যের অনুদান বাছাই কমিটি গঠন করা হবে। ৩১ আগস্টের মধ্যে চলচ্চিত্রের গল্প, চিত্রনাট্য আহ্বান করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবে তথ্য মন্ত্রণালয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *