বাংলাদেশ দল ও ঘরোয়া ক্রিকেট নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন বুলবুল

সাম্প্রতিক বাংলাদেশ দল ও ঘরোয়া ক্রিকেট নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন সাদা পোশাকের প্রথম সেঞ্চুরিয়ান আমিনুল ইসলাম বুলবুল। প্রকাশ্যেই জানিয়েছেন, বাংলাদেশ দলে ভাঙনের সৃষ্টি হয়েছে, এটাই হওয়ার ছিল!

দেশের ঘরোয়া ক্রিকেট ব্যবস্থা নিয়ে এমনিতেই অভিযোগের শেষ নেই। সাবেক ক্রিকেটার থেকে শুরু করে বর্তমান ক্রিকেটাররাও বিভিন্ন সময়ে বিভিন্নভাবে নিজেদের ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন, অভিযোগ করেছেন। যার বড় পরিণতি ছিল ২০১৯ সালের অক্টোবরে ক্রিকেটারদের আন্দোলন। তারপরেও অবস্থার উন্নতি খুব একটা হয়নি, চোখেও পড়েনি।

এবার প্রকাশ্যেই ঘরোয়া ক্রিকেট ব্যবস্থাকে ধুয়ে দিলেন বর্তমানে কোচিং পেশায় থাকা বুলবুলও। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তিনি সমালোচনা করে বলেন, ঘরোয়া ক্রিকেটকে অপরাধের আখড়ায় পরিণত করা হয়েছে।

বুলবুলের ভাষ্য এটাই হওয়ার কথা ছিল। মূল কারণ সততার অভাব। ঘরোয়া ক্রিকেটে গত কয়েক বছর যেভাবে অপরাধে পরিণত করা হয়েছে, তাতে শুধু অপেক্ষায় ছিলাম, ধসটা কখন হবে।

ঘরোয়া ক্রিকেটের ওই অপরাধবোধ ধস নামিয়েছে জাতীয় দলেও। তাছাড়া জাতীয় দলের ভেতরেই আরেকটা দল সৃষ্টি হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বুলবুল। এটাও সরাসরি বলেছেন যে, দলের জ্যেষ্ঠ ৫ ক্রিকেটার ও তরুণ ক্রিকেটাররা নাকি দুই দলে বিভক্ত হয়েছেন। এমনকি ব্যক্তি ক্রিকেটার হিসেবেও তাদের একের সাথে অপরের তিক্ততা আছে। একজন ক্রিকেটারের জন্য আরেকজনকে হীন করাটা স্বাভাবিক ব্যাপার হয়ে উঠেছে।

বুলবুলের ভাষায়, ‘দলের ভেতরে দল। পাঁচ পান্ডব বনাম বাকি খেলোয়াড়রা। সবার কথাবার্তায় দলের বাকি খেলোয়াড়দের দ্বিতীয় শ্রেণির নাগরিক মনে হয়। দল ছেড়ে এখন ব্যক্তি ক্রিকেটারদের পেছনে সবাই। বাংলাদেশ দলটাকে খুঁজে পাই না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *