নাফিস-লিটনের জোড়া ‘ডাক ও সেঞ্চুরিতে’ তোলপাড়

ক্রিকেট আসলেই চরম অনিশ্চয়তার খেলা। মাঝেমধ্যেই এমন সব কাকতালীয় ও অদ্ভুতুড়ে ঘটনার জন্ম দেয়, যে থ মেরে যেতে হয়। সম্প্রতি তেমনই এক ঘটনা ঘটেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগে (বিসিএল)। যে ঘটনার দুই খলনায়ক বা নায়ক, উভয়ই- উত্তরাঞ্চলের লিটন দাস আর দক্ষিণাঞ্চলের শাহরিয়ার নাফিস। 

আজ শেষ হওয়া বিসিএলের প্রথম রাউন্ডের ম্যাচে দুজনেই জোড়ায় জোড়ায় ‘ডাক’ মারার পর সেঞ্চুরিও হাঁকিয়েছেন জোড়ায় জোড়ায়! কি, বুঝতে পারলেন না তো! তাহলে জেনে নিন পুরো ঘটনা।

সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) উত্তরাঞ্চল ও দক্ষিণাঞ্চলের মধ্যকার ম্যাচটি ব্যাটসম্যানদের দাপটে ড্র হয়েছে। তবে, নিষ্প্রাণ এই ম্যাচেই প্রাণের সঞ্চার করেছেন জাতীয় দলের সাবেক ওপেনার শাহরিয়ার নাফিস ও বর্তমান সদস্য লিটন কুমার দাস।

ঘটনা হচ্ছে, ম্যাচের প্রথম ইনিংসে তাসকিন আহমেদের করা প্রথম বলেই উইকেটরক্ষক লিটন দাসের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন দক্ষিণাঞ্চলের ওপেনার শাহরিয়ার নাফিস। পরে ম্যাচের দ্বিতীয় আর উত্তরাঞ্চলের প্রথম ইনিংসে শফিউল ইসলামের করা ওভারের প্রথম বলেই লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন লিটন দাস। অর্থাৎ প্রতিপক্ষ দলের দুই ওপেনারই নিজেদের প্রথম ইনিংসে সাজঘরে ফিরেছেন ‘ডাক’ মেরেই!

এমনটা হতেই পারে। কিন্তু পরে যা ঘটেছে তা রীতিমত বিস্ময়কর! ম্যাচের তৃতীয় তথা নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে প্রায় ৬ ঘণ্টা ব্যাট করে ২৫১ বল খেলে ১১১ রানের ইনিংস উপহার দেন শাহরিয়ার নাফিস।

নাফিস যদি প্রথম ইনিংসে ডাক মেরে পরের ইনিংসে এসে সেঞ্চুরি হাঁকাতে পারেন, তাহলে লিটন দাসই বা পিছিয়ে থাকবেন কেন? তিনিও ম্যাচের শেষ তথা নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে নেমে তুলে নেন সেঞ্চুরি! খেলেন ১৬৮ বলে ১০৩ রানের ঝলমলে এক ইনিংস।

জোড়া ডাক-এর পর জোড়া সেঞ্চুরির এ ম্যাচটি শেষ পর্যন্ত ড্র হলেও বেশ আলোচনার সৃষ্টি করেছে লিটন-নাফিসের এই দারুণ কাকতালীয় ‘জুটি’। আসলে সবাই তাদেরকে প্রশংসা বানীতেই শিক্ত করেছেন। একইসঙ্গে ‘কামব্যাক’ তো এমনই হওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *