টসে হেরে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে টসে হেরে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ। এ ম্যাচে নেই সাকিব-মাহমুদুল্লাহ ও মেহেদি হাসান মিরাজ। আর দলে থাকলেও স্কোয়াডে নেই মোস্তাফিজুর রহমান। 

বাংলাদেশি স্পিনে বরাবরই ধুঁকেছে জিম্বাবুয়ে। বিসিবি একাদশের সঙ্গে একমাত্র প্রস্ততি ম্যাচেও তাই দেখা গেছে। এদিকে, দেশের মাটিতে সর্বশেষ টেস্ট ম্যাচে পেসার না নিয়েই খেলেছিল বাংলাদেশ। তবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে রাখা হয়েছে দুইজন পেসার।

মিরপুর শের-ই বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ৯টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

ম্যাচ শুরুর আগে কোচ রাসেল ডমিঙ্গো বলেন, ‘আমরা সম্ভবত দুজন পেসার নিয়ে খেলতে নামছি। স্রেফ একজন পেসার নিয়ে খেললে আসলে দলের খুব একটা উপকার হয় না। তিন পেসার খেলাতে পারলে ভালো হতো। যদি এমন একজন থাকতো যে, পেস বোলিং করবে এবং সাত নম্বরে ব্যাটিংটাও করে দিবে, তাহলে ভালো হতো। কিন্তু আমাদের তেমন কেউ নেই।’

প্রধান কোচ বলেন, ‘আমরা যদি তিন পেসার নিয়ে খেলি তাহলে ব্যাটিং লাইনআপ হালকা হয়ে যায়। কারণ আমাদের দুজন স্পিনার নিতেই হবে। যতদিন সাইফুদ্দিন ফিট না হবে বা এমন কাউকে না পাব যে ১০-১৫ ওভার পেস বোলিং করবে এবং সাতে ব্যাট করবে, ততোদিন আমাদের দুজন পেসার নিয়েই নামতে হবে।’

অপরদিকে ব্যাটিংয়ে ওপেনার তামিম ইকবালের সঙ্গে রাখা হয়েছে সাইফ হাসানকে। তিনে নাজমুল হোসেন শান্ত, চারে অধিনায়ক মোমিনুল হক আর পাঁচে মুশফিকুর রহিম। পাকিস্তানে ফিফটি হাঁকানোয় ছয় নম্বরে রাখা হয়েছে মোহাম্মদ মিঠুনকে। লিটন দাসকে দেখা যাবে সাতে।

বাকীদের মধ্যে- স্পিনার দুজন হলেন নাঈম হাসান ও তাইজুল ইসলাম। তাইতো বসে রাখা হয়েছে মেহেদি হাসান মিরাজকে। পেস আক্রমণে আছেন আবু জায়েদ রাহীর সঙ্গে ইবাদত হোসেন।

বাংলাদেশের একাদশ : 
তামিম ইকবাল, সাইফ হাসান, নাজমুল হোসাইন শান্ত, মোমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, লিটন দাস, তাইজুল ইসলাম, নাঈম হাসান, আবু জায়েদ রাহী ও এবাদত হোসেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *