ঝালকাঠিতে দোকান খোলা রাখায় ৪৩ হাজার টাকা জরিমানা

ঝালকাঠিতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবেলায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সাঁড়াশী অভিযান পরিচালনা করেছে জেলা প্রশাসন। এ সময় দোকান ও শো-রুম খোলা রাখার দায়ে ব্যবসায়ীদেরকে ৪৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

সোমবার (৫ এপ্রিল) সকাল থেকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সিফাত বিন সাদেকের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়।

তিনি জানান, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবেলায় সরকার নির্ধারিত ১৮ দফা নির্দেশনা বাস্তবায়নের লক্ষে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হচ্ছে। লকডাউন কার্যকরে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

এ সময় লকডাউনের বিধি নিষেধ না মানায় ভিশন শো-রুমকে ৫ হাজার, এলজি শো-রুমকে ৫ হাজার, মেসার্স শফিকুল ইসলামকে ২ হাজার, দেবনাথ বস্ত্রালয়কে ৩ হাজার, পূজা হার্ডওয়্যারকে ৩ হাজার জরিমানা করা হয়। এছাড়া শহরের মাছ বাজার, কাপুড়িয়াপট্টিসহ বিভিন্ন স্থানে মোট ২৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অন্যদিকে, ঝালকাঠির রাজাপুরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মুখে মাস্ক না পড়ে উস্কানিমূলক কথা বলায় এক ব্যক্তিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। রোববার সন্ধ্যায় উপজেলার উত্তমপুর বাজারে অভিযান চালিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যামাণ আদালতের বিচারক মো. মোক্তার হোসেন এ দণ্ড দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তি হলেন উপজেলার পুটিয়াখালী এলাকার মো. ইসমাইল হোসেনের ছেলে মো. শওকত হোসেন।

স্থানীয়রা জানান, স্থাস্থ্যবিধি নিশ্চিতকরণে উপজেলা প্রশাসনের অভিযানের সময় শওকত হোসেন মুখে মাস্ক না পড়েই বাজারে ঘোড়াফেরা করছিলো। ভ্রাম্যামাণ আদালতের বিচারক তাকে মাস্ক পড়তে বললে সে আদালতের সাথে উস্কানিমূলক কথাবার্তা বলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *