জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় যৌথ প্রচেষ্টা চাই: স্পিকার

 জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় যৌথ প্রচেষ্টা চালাতে হবে। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন- এ ক্ষেত্রে তরুণেদের নতুন ও উদ্ভাবনী চিন্তাভাবনায় গতিশীলতা এনে দিতে পারে।

স্পিকার শুক্রবার দিবাগত রাতে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বাংলাদেশ ইয়ুথ লিডারশীপ সেন্টার আয়োজিত গ্লোবাল ইয়ুথ ক্লাইমেট সামিট-২০২১ এর সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ ইয়ুথ লিডারশীপ সেন্টার আয়োজিত সামিটের ফলস্বরূপ ছয়টি মহাদেশের তের থেকে চব্বিশ বছর বয়সী পাঁচশ’ তরুণ বিশ্বব্যাপী যুব প্রতিশ্রুতি চালুকরণের মাধ্যমে বিশ্ব জলবায়ু বিপর্যয় এড়াতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপে প্রতিশ্রতিবদ্ধ থাকবেন জেনে স্পিকার সন্তোষ প্রকাশ করেন।

বাংলাদেশ ইয়ুথ লিডারশীপ সেন্টার এর গভার্নিং বোর্ড মেম্বার ফারজানা কাশফির সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সামিটের প্রধান উপদেষ্টা ডার্বি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম উপাচার্য স্যার ক্রিস্টোফার বল। স্যার ক্রিস্টোফার বল ও তাঁর স্ত্রীকে জলবাযু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় উদ্ভাবনী ধারণা প্রদানকারী ও ইভেন্ট বিজয়ী বারোজন অগ্রসর তরুণ ব্যক্তিত্ত্বকে স্কলারশিপ প্রদানের জন্য স্পিকার অভিনন্দন জানান।

স্পিকার স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন উপলক্ষ্যে বিভিন্ন মহাদেশের তরুণদের একত্রিত করে তাদের মধ্যে নেতৃত্ব দেবার দক্ষতা তৈরি এবং প্রয়োজনীয় জ্ঞান ও সরঞ্জাম সরবরাহের মাধ্যমে জলবায়ুর বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় যোগ্য করে গড়ে তুলতে এই ইভেন্ট আয়োজন করার জন্য বাংলাদেশ ইয়ুথ লিডারশীপ সেন্টারকে ধন্যবাদ জানান।

স্পিকার বলেন, জলবায়ু বিরূপ প্রভাব নিরুপক সূচক-২০১৯ অনুযায়ী ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর ভিতরে বাংলাদেশের অবস্থান ৭ম, এই ঝুঁকি মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘ডেলটা প্লান-২১০০’ গ্রহণ করেছেন। জলবায়ুর পরিবর্তনে প্রভাবিত ৪৮টি ঝুঁকিপূর্ণ দেশের সমন্বয়ে গঠিত ফোরামের বর্তমান সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শেখ হাসিনা গৃহীত পদক্ষেপ অনুযায়ী বাংলাদেশ জলবায়ুর প্রভাব মোকাবেলায় কাজ করে যাচ্ছে। এ প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ ইয়ুথ লিডারশীপ সেন্টার আয়োজিত সামিটে বিভিন্ন অংশগ্রহণকারী উপস্থাপিত নতুন ও উদ্ভাবনী চিন্তাভাবনা অনুপ্রেরণামূলক এবং প্রশংসনীয়।

তিনি আরো বলেন, ‘পৃথিবী শুধুমাত্র একটি গ্রহই নয়, তাই বাসযোগ্য একটি পৃথিবী গড়ে তুলতে জলবায়ুর প্রভাব মোকাবেলা জরুরী। তাই গাছ লাগিয়ে, কার্বন নিঃসরন কমিয়ে জলবায়ুর প্রভাব মোকাবেলা করে পৃথিবী রক্ষা করতে হবে-এটাই আমাদের প্রত্যাশা।’ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ইয়ুথ লিডারশীপ সেন্টারের সভাপতি ইজাজ আহমেদ সমাপনী বক্তব্য দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *