করোনা সহায়তায় ১ হাজার ডলার পাবেন মার্কিনীরা

আমেরিকার প্রেসিডেন্টের কোষাগার বিষয়ক সেক্রেটারি বলেছেন, করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সহায়তার জন্য নাগরিকদের এক হাজার ডলার কিংবা তার বেশি মূল্যের চেক পাঠাতে চান ডোনাল্ড ট্রাম্প। 

জানা গেছে, করোনা ভাইরাসের কারণে বেকার হয়ে যাওয়া ব্যক্তিদের সহায়তার জন্য এভাবে এক হাজার ডলারের চেক পাঠাতে চান প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। অর্থনৈতিক সঙ্কট এড়াতে পদক্ষেপটি বাস্তবায়ন হবে শিগগিরই।

যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি রাজ্যেই করেনা ভাইরাসের উপস্থিতি নিশ্চিত হওয়া গেছে। এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে ৬ হাজার করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছেন। দেশটিতে মৃত্যুর সংখ্যা ১০৫।

ট্রাম্পের কোষাগার বিষয়ক সেক্রেটারি স্টিভেন নুসিন বলেন, মার্কিনিদের এখন অর্থ দরকার এবং মার্কিন প্রেসিডেন্ট তাদের অর্থ প্রদান করতে চান; এটা দেওয়া হতে পারে পরের দুই সপ্তাহের মধ্যে।

যুক্তরাষ্ট্রে করোনা ভাইরাসের প্রকোপে বহু প্রতিষ্ঠান আপাতত বন্ধ রয়েছে। বিমান থেকে শুরু করে কল-কারখানার বহু শ্রমিক বেকার হয়ে গেছেন। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় কর্মীরা বিনা বেতনে ছুটিতে আছেন। অর্থনৈতিক সঙ্কট প্রকট হওয়ার আগেই বিষয়টি বিবেচনা করছে মার্কিন প্রশাসন।

নুসিন বলেন, আমরা এটা নিশ্চিত করতে চাই যে, শিগগিরই মার্কিনিদের পকেটে পর্যাপ্ত টাকা থাকবে। যত দ্রুত সম্ভব তাদের কাছে চেক পাঠানোর ব্যবস্থা করছি আমরা।

স্যান ফ্রান্সিসকোর উপকূল অঞ্চলের মতো নিজেদের অবরুদ্ধ করে রাখা বা লকডাউনের চিন্তা করছে নিউইয়র্ক শহর।

স্যান ফ্রান্সিসকো বে এলাকার কর্তৃপক্ষ ৭ এপ্রিল পর্যন্ত ৬ লাখ ৭০ হাজার মানুষকে অতি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের না হওয়ার নির্দেশ দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স বলেছেন, রাজ্যের গভর্নরদের অনুরোধে ভাইরাস আক্রান্ত এলাকাগুলোতে মাঠ পর্যায়ে হাসপাতাল তৈরি করার নির্দেশ দিতে পারে হোয়াইট হাউজ।

পেন্টাগন প্রধান মার্ক এস্পার জানিয়েছেন শ্বাস প্রশ্বাসে সহায়ক ৫০ লাখ মাস্ক এবং ২ হাজার ভেন্টিলেটর স্বাস্থ্য বিভাগকে দেবে সেনাবাহিনী।

মঙ্গলবার আরো ১১টি রাজ্যের মতো পানশালা ও রেস্টুরেন্ট বন্ধ করার ঘোষণা দেয় ফ্লোরিডা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *