ই-ক্যাব সদস্যরা বছরে ১০ হাজার ডলার বিদেশে পাঠাতে পারবেন

এখন থেকে অনুমোদন ছাড়াই যৌক্তিক ব্যয় বাবদ বছরে ১০ হাজার মার্কিন ডলার বিদেশে পাঠাতে পারবেন ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ই-ক্যাব) সদস্যরা। এতে ই-কমার্স কার্যক্রম আরও সহজ হবে।

রোববার (২ মে) বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রানীতি বিভাগ এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করেছে। সার্কুলারটির দেশের ফরেন এক্সচেঞ্জের সব অথরাইজড ডিলারের কাছে পাঠানো হয়েছে। তা শিগগিরিই কার্যকর করা হবে বলে জানা গেছে।

সার্কুলারে বলা হয়েছে, বাৎসরিক কোটা সীমার মধ্য থেকে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের মনোনীত কর্মকর্তার নামে ২ হাজার মার্কিন ডলারের আন্তর্জাতিক ক্রেডিট ও প্রিপেইড কার্ড ইস্যু করা যাবে। কার্ডে পুনরায় বৈদেশিক মুদ্রার অর্থ রাখা যাবে। তবে কার্ডের মাধ্যমে এবং প্রচলিত ব্যাংকিং ব্যবস্থার আওতায় বিদেশে পাঠানো অর্থের পরিমাণ কোনো অবস্থাতেই ১০ হাজার মার্কিন ডলারের বেশি হতে পারবে না।

সার্কুলারে বাৎসরিক কোটার আওতায় বিদেশে রেমিট্যান্স পাঠানোর ক্ষেত্রে বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেনের বিধিবিধান, কর/ভ্যাট কর্তন ও জমা, ই-ক্যাবের সুপারিশসহ বিষয়গুলো পরিপালনের জন্য অনুমোদিত ডিলার ব্যাংকগুলোকে বলা হয়েছে।

এ সার্কুলারের ফলে ই-কমার্স পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠানগুলো ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র বৈদেশিক ব্যয় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অনুমোদন ছাড়াই বিদেশে পাঠানো যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *