আরও ২ বছর করোনায় ভুগতে হবে ইউরোপকে

প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

চীনের পর করোনা ভাইরাস মহামারি আকারে রূপ নিয়েছে ইউরোপে। ইতিমধ্যে করোনার মৃতের সংখ্যায় চীনকে ছাড়িয়ে গেছে ইউরোপের দেশ ইতালি। এছাড়া ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য, জার্মানি, স্পেনের মতো ইউরোপের একাধিক দেশ প্রাণঘাতী ভাইরাসটির আতঙ্কে কাঁপছে। এমন পরিস্থিতিতে চীনের বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করছেন, অন্তত আরও দু’বছর ইউরোপের বিভিন্ন দেশকে করোনা ভাইরাসের আক্রমণে ভুগতে হবে।

চীনের করোনা ক্লিনিকাল বিশেষজ্ঞ দলের প্রধান ঝাং ওয়েনহং চায়না সাউথ মর্নিং পোস্টে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, করোনা ভাইরাসের প্রকোপ সাময়িকভাবে কমতে পারে, তবে আবার ফিরে আসবে। ইউরোপের দেশগুলো করোনামুক্ত হতে অন্তত আরও দুবছর সময় লেগে যেতে পারে।

ঝাং ওয়েনহং আরও বলেন, এই ভাইরাস থেকে বাঁচতে লকডাউন ছাড়া আর কোনও উপায় নেই। যদি সারা বিশ্বকে চার সপ্তাহের জন্য বন্ধ রাখা যায়, তবে এই করোনা মহামারী রোধ করা যেতে পারে। এজন্য বিশ্বের সমস্ত দেশকে একযোগে লকডাউন ঘোষণা করতে হবে।

শুধুমাত্র সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলোকে লকডাউন করলেই হবে না বলে উল্লেখ করেন এই চীনা বিশেষজ্ঞ। তিনি বলেন, বিশ্বের বহু দেশের সরকার করোনা রোধে সক্রিয় হয়ে উঠায় এটি ভাল লক্ষণ।

ইউরোপের দেশ ইতালিতে এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে মৃত্যু হয়েছে ৬ হাজার ৭৭ জন, দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছে ৬৩ হাজার ৯২৭ জন। অপরদিকে স্পেনে মারা গেছে ২ হাজার ১৮২, আক্রান্ত হয়েছে ৩৩ হাজার ৮৯ ব্যক্তি, জার্মানিতে মৃত্যু ৮৬, আক্রান্ত ২২ হাজার ৬৭২, ফ্রান্সে মৃত্যু ৮৬০, আক্রান্ত ১৯ হাজার ৮৫৬, যুক্তরাজ্যে মৃত্যু ৩৩৫, আক্রান্ত ৬ হাজার ৬৫০।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *