আজ জলবায়ু সম্মেলনে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ রাতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জলবায়ু সম্মেলনে ভার্চুওয়ালি যুক্ত হয়ে ভাষণ দেবেন। এতে তিনি ১০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বার্ষিক বৈশ্বিক জলবায়ু তহবিল গঠনের আহ্বান জানাবেন এবং বাংলাদেশের নবায়নযোগ্য জ্বালানি খাতের সম্প্রসারণে সহায়তা চাইবেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের আহ্বানে দু’দিনব্যাপী ‘লিডারস সামিট অন ক্লাইমেট’-এর প্রক্কালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. একে আবদুল মোমেন বলেন, ‘আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শিল্পোন্নত দেশগুলোকে প্যারিস চুক্তির প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী বৈশ্বিক জলবায়ু তহবিলের জন্য বছরে ১০০ বিলিয়ন ডলার নিয়ে এগিয়ে আসার আহ্বান জানাবেন।’

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বিবৃতিতে এই তহবিলের জলবায়ু অভিযোজনে পঞ্চাশ শতাংশ এবং প্রশমনে পঞ্চাশ শতাংশ সমানভাবে কাজে লাগানোর দাবি জানাবেন।

প্যারিস চুক্তির অঙ্গীকারের অংশ হিসাবে জলবায়ু ঝুঁকিতে থাকা দেশগুলোকে প্রশমন ও অভিযোজনের মাধ্যমে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় সাহায্য করার জন্য ২০২০ সাল থেকে প্রতিবছর ১০০ বিলিয়ন ডলার তহবিল উত্তোলনের একটি বিধান রাখা হয়েছিল। তবে, এখনো এই প্রতিশ্রুতি বাস্তবাযন হয়নি।

শেখ হাসিনা জো বাইডেনের আমন্ত্রণে এ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দেবেন। জলবায়ু সম্পর্কিত মার্কিন প্রেসিডেন্টের বিশেষ দূত জন কেরি ঢাকায় গত ৯ এপ্রিল শীর্ষ সম্মেলনে অংশ নেওয়ার জন্য বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর কাছে একটি আমন্ত্রণপত্র হস্তান্তর করেন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আয়োজনে আজ বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৬ টায় শুরু হতে যাওয়া দু’দিনব্যাপী ভার্চ্যুয়াল শীর্ষ সম্মেলনটি মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং ভাইস-প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস উদ্বোধন করবেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিশ্বের ৩৯ রাষ্ট্র ও সরকার প্রধান এবং ইউরোপীয় কাউন্সিলের প্রেসিডেন্টকে দুই দিনের এ ভার্চ্যুয়াল শীর্ষ সম্মেলনে অংশ নিতে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধনের পরে, ‘রেইজিং আওয়ার ক্লাইমেট এম্বিশন’ শীর্ষক অধিবেশন-১-এ বৈশ্বিক উষ্ণায়ন ১.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে সীমিত রাখার লক্ষ্য নাগালের মধ্যে রাখার তাগিদ তুলে ধরে অন্য বিশ্ব নেতাদের সাথে তার বক্তব্য উত্থাপন করবেন।

অধিবেশন-১ এ বক্তব্য দেবেন এমন বিশ্ব নেতাদের মধ্যে রয়েছেন- রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন, চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং, জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মার্কেল, দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইন, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়িপ এরদোগান, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিহিদে সুগা, অস্ট্রেলিার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন প্রমুখ।

জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আন্তোনি জে ব্লিংকেন এবং মার্কিন প্রেসিডেন্টের জলবায়ু বিষয়ক বিশেষ দূত জন কেরিও এতে যোগ দেবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *