অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মামুনুর রশীদ

দেশবরেণ্য সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, নাট্যকার, অভিনেতা ও নাট্য পরিচালক মামুনুর রশীদ অসুস্থ। তাকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানেই তিনি চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন টেলিভিশন নাট্যকার সংঘের সভাপতি মাসুম রেজা।

মামুনুর রশীদ দীর্ঘদিন ধরে পেট ব্যথায় ভুগছিলেন। মঙ্গলবার (৪ ফেব্রুয়ারি) পেট ব্যথা অনেক বেড়ে গেলে তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়ে আসা হয়। সেখানে কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তার আলসার ধরা পড়ে। এরপর চিকিৎসকের পরামর্শে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

মাসুম রেজা বলেন, ‘মামুন ভাইয়ের আলসার ধরা পড়েছে। এখন পিজি হাসপাতালে ভর্তি আছেন। তবে আজ সকালের কোনো আপডেট তথ্য আমার জানা নেই।’

নাট্যজন মামুনুর রশীদ স্বাধীনতা-উত্তর বাংলাদেশের মঞ্চ আন্দোলনের পথিকৃৎ। তিনি টিভির জন্য অসংখ্য নাটক লিখেছেন এবং অভিনয় করেছেন। ১৯৬৭ সালে তিনি তদানীন্তন পূর্ব পাকিস্তানে টেলিভিশনের জন্য নাটক লিখতে শুরু করেন যার বিষয়বস্তু ছিল মূলত পারিবারিক। সেসময় কমেডি নাটকও তিনি লিখতেন। নাট্যশিল্পের প্রতি তার প্রকৃত ভালবাসা শুরু হয় টাঙ্গাইলে তার নিজ গ্রামে যাত্রা ও লোকজ সংস্কৃতির সঙ্গে তার নিবিড় পরিচয়ের সূত্র ধরে। তার যাত্রার অভিনয় অভিজ্ঞতা তার নাট্যভাবনাকে খুবই প্রভাবিত করেছিল। ১৯৭১ সালে তিনি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে যোগ দেন এবং জড়িত হন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের সঙ্গে। মুক্তিযুদ্ধকালীন তিনি তার প্রথম রচিত নাটক ‘পশ্চিমের সিঁড়ি’ কলকাতার রবীন্দ্রসদনে মঞ্চায়নের চেষ্টা করেন; কিন্তু তার আগেই ১৬ ডিসেম্বর দেশ স্বাধীনতা অর্জন করায়, নাটকটি আর তখন অভিনীত হয় নি। পরে নাটকটি ১৯৭২ সালে বাংলাদেশে অভিনীত হয়।

নাট্যকলায় বিশেষ অবদানের জন্য ২০১২ সালে তিনি একুশে পদকেও ভূষিত হন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *